বিলগেটস ও জাকারবার্গের মতো ধনকুবেরদের মানবসেবা

  • ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১২:০২

মানকল্যাণে ধনকুবেরদের দানের প্রচলন শত শত বছর ধরেই চলে আসছে। তবে বিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকে এটি ব্যাপকভাবে শুরু হয়। সে সময় শিল্পায়নের প্রবৃদ্ধির যুগে প্রতিষ্ঠানের উচ্চপর্যায়ের মুনাফাভোগীদের সাথে নিম্নস্তরের কর্মীদের ব্যাপক আর্থিক বৈষম্য সৃষ্টি হয়। এই সমস্যার সমাধানে কিংবা নিজেদের সুনাম বৃদ্ধি অথবা মানবিক দায়িত্ববোধ যে কারণেই হোক, বিশ্বের কয়েকজন শীর্ষস্থানীয় ধনী ব্যক্তি তাদের সম্পদের বিরাট অংশ দান করার সিদ্ধান্ত নেন।


করোনা ভাইরাস

  • ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ২২:৫২

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় ব্রিটিশ সৈন্য ইনফ্লুয়েঞ্জা রোগে মারা গিয়েছিল। ধারণা করা হয়, এই ইনফ্লুয়েঞ্জা রোগ জীবাণু ছড়িয়ে ছিল জার্মানি। কিন্তু পরে এই রোগ জার্মান সৈন্যদের মধ্যেও হতে পেরেছিল যথেষ্ট সংক্রমিত। বলা হয়, জীবাণু অস্ত্রের সুবিধা হলো, এর প্রয়োগে সৈন্যসহ বহু মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়ে। অসুস্থদের সেবা যত্ন করতে যেয়ে আরো অনেক লোক আটকা পড়ে। লড়াইয়ের জন্য ও তা যথাযথভাবে চালিয়ে যাওয়ার জন্য দেখা দেয় লোকের অভাব। কিন্তু বাস্তবে রোগ জীবাণু কেবল শত্রুপক্ষের মধ্যেই নিবদ্ধ থাকেনা। সংক্রমিত হতে পারে তা নিজেদের মধ্যে মধ্যেও।


কোন দেশের পর্যটকরা কেমন

  • ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৪:২৩

একটা সময় ছিল, যখন যোগাযোগের মাধ্যম বলতে ছিল টেলিফোন, টেলিগ্রাম ও চিঠি। তখন কেউ বাড়ি থেকে বের হওয়া মানেই একরকম বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া। স্মার্ট ফোন এসে সেই আদ্যিকালের 'খেলাটা' আমূল বদলে দিয়েছে। এখন পর্যটক বা তার হোস্ট যে-ই কোনো বিরূপ আচরণ করুক না কেন, অপরজন তার ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়ে দিতে পারছে। আর এর মাধ্যমে সারা পৃথিবী জেনে যাচ্ছে, কোন দেশের পর্যটক বা অবকাশকারীদের আচরণ আসলে কেমন।


জিবুতিতে কেন চীন, যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স ও তুরস্ক

  • ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১২:৪১

আফ্রিকার ছোট্ট একটি দেশ। নাম জিবুতি। আফ্রিকা মহাদেশের তৃতীয় ক্ষুদ্রতম দেশ। বেশির ভাগ এলাকাই বিরান, জনসংখ্যা ১০ লাখেরও কম। কিন্তু এই দেশেই একের পর এক সামরিকঘাঁটি গাড়ছে পরাশক্তিগুলো। যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, চীনের মতো দেশের সামরিক উপস্থিতি রয়েছে এখানে। মধ্যপ্রাচ্যের শক্তিশালী খেলোয়াড় তুরস্কের ব্যাপক প্রভাব আছে দেশটির ওপর।


তুরস্ক কেন সবার শত্রু

  • ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৩:১০

মুসলিম বিশ্বের মধ্যে অনৈক্য রেষারেষি ও হানাহানির ইতিহাস বহু পুরনো। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে তা যে কী ভয়ঙ্কর রুপ নিয়েছে, তা তো ইয়েমেন ও সিরিয়ার ধ্বংসস্তুপের দিকে তাকালেই বোঝা যায়। একদা সমৃদ্ধ ইরাক ও লিবিয়া আজ প্রায় অকার্যকর দেশ। ইরান ও কাতার প্রায়-একঘরে। এবার কি শনির দৃষ্টি পড়েছে তুরস্কের ওপর?